[+] Tools

Color Theme

Font Size

Results

Cookie color (CSS):

Cookie width (CSS):

Cookie fontsize(CSS):


Use the reload link, to see, if the cookie works!

Reload page !
Universatil template, by 55thinking
Sreemadbhagbad Gita Sangha

‘সূর্য নমস্কার’ পরীক্ষায় খোদ ডাক্তাররা

Attention: open in a new window. PDFPrintE-mail

Last Updated (Tuesday, 30 November 1999 00:00) Written by Radha Krishna Saturday, 23 January 2010 22:26

শক্তিস্ফূর্তি বাড়াতে

‘সূর্য নমস্কার’ পরীক্ষায় খোদ ডাক্তাররা


পুনে, ২৩ জানুয়ারি (পি টি আই): ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপের মতো রোগের মোকাবিলায় সূর্যদেবের আশীর্বাদ চাইছেন ভারতীয় চিকিৎসকরা। তাঁরা প্রমাণ করতে চান নিয়মিত ‘সূর্য নমস্কার’ করলে এইসব অসুখ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। ভারতের সুপ্রাচীন ‘সূর্য নমস্কারের’ এই গুণাগুণ আন্তর্জাতিক স্তরে তুলে ধরার জন্য এগিয়ে এসেছেন ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের চিকিৎসকরা। এখানকার একটি  স্কুলের মাঠে আগামীকাল থেকে প্রতিদিন ‘সূর্য নমস্কার’ অনুশীলন করবেন ৫০০ জন চিকিৎসক। এক বছর পর পরীক্ষা করে দেখা হবে আগের থেকে তাঁদের স্বাস্থ্যের কতটা পরিবর্তন হয়েছে।

সূর্যদেবকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বৈদিক যুগের ভারতীয়রা ‘সূর্য নমস্কার’ চালু করেছিলেন। কিন্তু ‘সূর্য নমস্কার’ চালু করার সময় তাঁরা বোধহয় শরীরকে সুস্থ রাখার কথাও মাথায় রেখেছিলেন। এতে মোট ১২টি ভঙ্গিতে সূর্যদেবকে নমস্কার করতে হয়। বর্তমান যুগের চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এই ১২টি ভঙ্গি নিয়মিত অভ্যাস করলে অনেক রোগব্যাধি শরীর থেকে পালাবে। মুনি ঋষিদের সেই সাধন ঐতিহ্যকে এবার দুনিয়ার সামনে তুলে ধরতে চান ভারতীয় চিকিৎসকরা।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের পুনে শাখার সভাপতি ডাঃ দিলীপ সারদা জানিয়েছেন, এই চিকিৎসকদের মধ্যে ৩০ বছরের যুবকরা যেমন আছেন, তেমনি আছেন ৮০ বছরের বৃদ্ধরা। এঁদের মধ্যে দু’জনের বাইপাস সার্জারিও হয়ে গিয়েছে। প্রতিদিন ১০ মিনিট ধরে তাঁরা ১২টি ভঙ্গিতে সূর্যকে নমস্কার করবে। একইসঙ্গে উচ্চারণ করবেন বৈদিক মন্ত্র। একবছর পর তাঁদের নাড়ির গতি, রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, সুগার, ফ্যাট পরীক্ষা করে দেখা হবে।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের এই উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত থাকবেন অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ কে এইচ সানচেতি এবং হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ কে বি গ্রাণ্টের মতো চিকিৎসকরা। ডাঃ গ্রাণ্টই পরামর্শ দিয়েছিলেন, পিশ্চমী চিকিৎসার নকল না করে ‘সূর্য নমস্কার’ নিয়ে গবেষণা করার। আই এম এ’র তরফে ডাঃ সারদা জানিয়েছেন, আধুনিক যুগে মানুষের জীবনযাত্রার পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে ডায়াবেটিস, রক্তচাপের মতো রোগের প্রকোপ বেড়েছে। আমরা প্রমাণ করে দিতে চাই, ভারতীয় পদ্ধতিতে এই সব রোগের মোকাবিলা সম্ভব।

Source: বর্তমান, কলকাতা, রবিবার ২৪ জানুয়ারী ২০১০, ১০ মাঘ ১৪১৬

Up
Up