[+] Tools

Color Theme

Font Size

Results

Cookie color (CSS):

Cookie width (CSS):

Cookie fontsize(CSS):


Use the reload link, to see, if the cookie works!

Reload page !
Universatil template, by 55thinking
Sreemadbhagbad Gita Sangha

The News

প্রাক্তনী জগদীশচন্দ্রকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছে কেমব্রিজ

Attention: open in a new window. PDFPrintE-mail

Last Updated (Saturday, 10 January 2009 01:39) Written by Radha Krishna Saturday, 07 July 2007 09:54

আনন্দবাজার পত্রিকা, কলকাতা

৮০০ বছরের বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধার্ঘ্য ১৫০ বছরের বিজ্ঞানীকে। বিশ্ববিদ্যালয়টি কেমব্রিজ আর বিজ্ঞানী জগদীশচন্দ্র বসু।

এই জানুয়ারিতেই ৮০০ বছরে পা দিচ্ছে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়। এই উপলক্ষে নানা কর্মসূচির অন্যতম, উজ্জ্বল এক প্রাক্তনী জগদীশচন্দ্রের আবিষ্কার ও বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে তার অবদানের কথা স্মরণ করে তাকে শ্রদ্ধা জানানো। যাদের শ্রদ্ধা জানানো হবে, সেই তালিকায় আছেন চার্লস ডারউইনও। শুক্রবার কলকাতায় বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্সে এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানান কেমব্রিজের উপাচার্য অ্যালিসন রিচার্ড।

ঠিক এক বছর আগেও এ দেশে এসেছিলেন অ্যালিসন। এই নিয়ে তার দু’টি সফরেরই প্রধান উেদ্দশ্য, শিক্ষার ক্ষেত্রে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক দৃঢ় করা। এ দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিল কেমব্রিজ ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনীদের সংগঠন ‘কেমব্রিজ অ্যাণ্ড অক্সফোর্ড সোসাইটি, কলকাতা’। অনুষ্ঠানে উপিস্থত কেমব্রিজের প্রাক্তনীদের কাছে উপাচার্যের আবেদন, ১৭ জানুয়ারি, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দিনটিকে তারা যেন কোনও না-কোনও গির্জায় ঘণ্টা বাজিয়ে স্মরণ করেন।

৮০০ বছরে পা দেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে যে-অনুদান আসবে, তা দিয়ে মূলত চার ধরনের কাজ হবে বলে উপাচার্য জানান। সেগুলি হল পড়ুয়াদের বৃত্তি দেওয়া, শিক্ষক-শিক্ষাকমর্র্ী নিয়োগ, পঠনপাঠনের মানোন্নয়নে ব্যবস্থা নেওয়া, গ্রন্থাগার ও সংগ্রহশালায় সংগ্রহ বাড়ানো।

এ বারের সফরে ইনফোসিসের সঙ্গে তিন বছরের জন্য সমঝোতাপত্র সই করছেন অ্যালিসন। তিনি বলেন, ‘‘ইঞ্জিনিয়ারিং, অর্থনীতি, স্থাপত্যবিদ্যা, ব্যবসা ইত্যাদি ক্ষেত্রে যৌথ উদ্যোগে কাজ হবে ওই সংস্থার সঙ্গে।’’ তবে এ রাজ্যের কোনও বিশ্ববিদ্যালয় বা শিল্প সংস্থার সঙ্গে এখনই গাটছড়া বাধছে না কেমব্রিজ। সহ-উপাচার্য ডেম সাণ্ড্রা ডসন বলেন, ‘‘কলকাতা, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় বা পিশ্চমবঙ্গের অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করতে আমরা উৎসাহী। তবে সেটা স্নাতক স্তরে হওয়া মুশকিল। কারণ, স্নাতক স্তরের পঠনপাঠনে দু’দেশের পদ্ধতিতে বিস্তর ফারাক আছে।’’

 

ফের ভারতীয় পুরোহিত পশুপতিনাথে

Attention: open in a new window. PDFPrintE-mail

Last Updated (Saturday, 10 January 2009 01:29) Written by Radha Krishna Saturday, 07 July 2007 09:54

সংবাদসংস্থা  কাঠমাণ্ডু

পশুপতিনাথ মন্দিরে পুজোর দায়িত্ব ফিরিয়ে দেওয়া হল ভারতীয় পুরোহিতদেরই।
সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অমান্য করে নেপালের মাওবাদী সরকার নতুন পুরোহিত নিয়োগ করে। কিন্তু হিন্দু সংগঠন ও রাজনৈতিক দলগুলির চাপে আবার আগের নিয়মেই ফিরতে হল মন্দির কর্তৃপক্ষকে। মন্দির ট্রাস্টের প্রধান ও নেপালের প্রধানমন্ত্রী প্রচণ্ড জানান, তিনি নতুন পুরোহিত নিয়োগ বাতিল করে ভারতীয় পুরোহিতদেরই মন্দিরের কাজ সামলাতে বলেছেন। ডাকা হয়েছে প্রধান পুরোহিত মহাবালেশ্বর ভট্ট-সহ গণেশ ভট্ট ও রামকৃষ্ণ ভট্টকে। তাদের তত্ত্বাবধানেই আজ মন্দিরে ‘নিত্য পুজো’ হয়। এই উপলক্ষে হাজির ছিলেন হাজার দুয়েক লোক। এসেছিলেন বলিউড তারকা গোবিন্দও।
   

Page 3 of 3

Up
Up